মাওলায়ে কায়েনাত এর পবিত্রতাঃ একটি সরল উপলব্ধি

এ্যড. শাহীদুল আলম রিজভী
আপডেটঃ মে ৩০, ২০২০ | ১২:৫৬ 384 ভিউ
এ্যড. শাহীদুল আলম রিজভী
আপডেটঃ মে ৩০, ২০২০ | ১২:৫৬ 384 ভিউ
Link Copied!

আমি আলেম নই, সাধারণ মানুষ। সহজভাবে দীন বুঝি, মানি। দীনী ইলমে অজ্ঞ হলেও জ্ঞানানুসন্ধিৎসা তাড়িয়ে বেড়ায়। জানার চেষ্টা করি। গণহারে সব জায়গা থেকে নয়, অথেনটিক সোর্স থেকেই। একারণে নবীয়ে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামার “অন্যকে জানাও যা তুমি জানো” এ পবিত্র বাণীর দীক্ষায় টুকিটাকি লেখনীর চেষ্টা থাকে। তবে তর্ক পরিহারে মার্জিত আচরণে সচেষ্ট থাকি। মানুষ মাত্রই ভুল, আমি মানুষ হিসেবে ভুলের উর্ধ্বে নই।

সাম্প্রতিক অনলাইন বিতর্ক থেকে এ লেখার উৎপত্তি। আজকের লেখা ওভাবে একাডেমিক ডিসকাশন নয়, বরং সহজ সরল উপলব্ধি তুলে ধরাই মূখ্য। আহলে বায়ত তথা নবী পরিবারের অন্যতম প্রাণপুরুষ হযরত আলী কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহুর পবিত্র শানমান নিয়ে আঘাত করলো একটা পক্ষ। অতঃপর জেগে উঠেছে আহলে বায়তের ভক্তরা। অধ্যয়নে সহজভাবে যা বুঝেছি, সেসময় মদ হারাম ছিল না। সাহাবায়ে কেরাম রিদওয়ানুল্লাহি আজমাঈনদের মধ্যে কেউ সেসময় মদ্যপান করলে দোষের কিছু নেই। এখনকার প্রতিবাদ মাওলায়ে কায়েনাত হযরত আলী কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহুর পবিত্র শানমান রক্ষার দাবিতেই নয় শুধু, বরং মহান আল্লাহর কুদরতী দায়িত্বের প্রতি গোসতাখির প্রতিবাদেই।

প্রসঙ্গক্রমে_

বিজ্ঞাপন

প্রথমতঃ
হযরত আলী আলাইহিস সালাম, তিনি কে? তিনি পৃথিবীর বুকে একমাত্র সন্তান যাঁর জন্ম হয়েছিলো পবিত্র কাবা শরীফের অভ্যন্তরে। জন্মের পর প্রথম চোখ মেলে দেখেছেন জগত সংসারের সবচেয়ে পূতঃপবিত্রতম স্বত্বা হযরত সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া আলিহি ওয়াসাল্লামাকে। জন্মদাত্রী মায়ের স্তন্যপান না করে প্রথম পান করেছেন হুযুর করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামার পবিত্র মুখনিঃসৃত লালা মোবারক। রাসুল এঁর নবুয়ত প্রকাশের পর তিনিই প্রথম বালক যিনি হযরত মা খাদিজা সালামুল্লাহি আলাইহার পর ঈমান গ্রহণ করেন। যখন নামাজ ফরজ হয়নি, তখনই পৃথিবীর বুকে মাত্র তিন জন নামাজী ছিলেন, ইমাম নবীজী নিজেই, প্রথম মুসল্লী আম্মাজান সাইয়িদা খাদিজাতুল কোবরা, দ্বিতীয় মুসল্লি হযরত আলী। নবীজী তাঁর হাত ধরেই বলেছেন, “আমি যার মাওলা এই আলী তার মাওলা”। একারণে এককথায় তাঁর পরিচয়- “মাওলায়ে কায়েনাত”! তিনি খলীফাতুল মুসলেমীন, আমীরুল মুমিনীন। আল কুরআনে অসংখ্য আয়াতে করীমা হযরত আলী কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহুর শানে অবতীর্ণ। তিনি জান্নাতী রমণীদের সম্রাজ্ঞী হযরত সাইয়িদা ফাতিমা খাতুনে জান্নাত সালামুল্লাহি আলাইহার প্রিয় স্বামী, জান্নাতী যুবকদের সরদার (রাজপুত্র) হযরত ইমাম হাসান আলাইহিস সালাম ও হযরত ইমাম হুসাইন আলাইহিস সালাম দের পবিত্র পিতা, তাহলে ওনি কে? সহজেই অনুমেয়। এককথায় হযরত মাওলা আলী রাদিআল্লাহু আনহু কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহু হলেন সৃষ্টি জগতের অতুলনীয় স্বত্বাদের একজন।

দ্বিতীয়তঃ
ইসলামের প্রথম যুগে বিভিন্ন যৌক্তিক কারণে হারাম না হলেও মদকে তখনও খারাপই জানা হতো। পূর্ববর্তী নবীদের শরীয়তেও এটা হারামই ছিলো। আল কুরাইশের আলোকিত মানুষরা দীনে হানিফে ছিলেন, আর মাওলায়ে কায়েনাত আজন্ম আশৈশব আঁকা হযরত সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া আলিহি ওয়াসাল্লামার সাহচর্য পাওয়ার কারণে মদের প্রতি তাঁর বিন্দুমাত্র উৎসাহ ছিলো না। তাই তিনি না মদ স্পর্শ করেছেন, না মদ তাঁকে স্পর্শ করতে পেরেছে! এটাই আহলে সুন্নাত এর আকিদা। তাছাড়া অন্যান্য অনেক হাদীস শরীফে সুস্পষ্ট উল্লেখ আছে, জাহেলী যুগেও যাঁরা মদ, জুয়া, অশ্লীলতা, কুফর, শিরক থেকে মুক্ত ছিলেন তাঁদের মধ্যে মাওলায়ে কায়েনাত, আমীরুল মুমিনীন, ছাহেবে আহলে বায়তে আতহার হযরত আলী মুরতজা কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহু অন্যতম।

তৃতীয়তঃ
তিরমিযী শরীফের বর্ণিত হাদীস টার বর্ণনার ধারাবাহিকতা (রেওয়ায়েত) সহিহ হলেও ব্যক্তির নাম উল্লেখে অন্যান্য হাদীস গ্রন্থে ব্যক্তির নামে ভিন্নতা রয়েছে। তাই মদপান করে মাগরীবের নামাজে ইমামতি করতে গিয়ে সুরা কাফিরুন পড়তে গিয়ে এদিক সেদিক করে ফেলা, এখানে মাওলায়ে কায়েনাত হযরত আলী এঁর নাম ব্যবহার কুরাইশী বংশের চিরশত্রু উমাইয়াদের শাসন যুগের ষড়যন্ত্রমূলক হওয়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়া যায় না।

বিজ্ঞাপন

চতুর্থতঃ
মাওলায়ে কায়েনাত এঁর বিষয়টি সম্পূর্ণ ভিন্ন। সেসময় মদ্যপান বৈধ থাকলেও মদকে নাপাক হিসেবেই দেখা হতো। জাহেলী যুগেও যেসব বিষয় ও জিনিস অপবিত্র ও গর্হিত হিসেবে গণ্য করা হতো তার মধ্যে মদ অন্যতম ছিলো, যেমনঃ কুফর, শিরক, মদ, জুয়া, ব্যভিচার ইত্যাদি। আল কুরআনে মদ হারাম হওয়ার দুই বছর আগে সুরা আহযাব এর ৩৩ নং আয়াতে করীমা নাযিল হয়, যাতে আহলে বায়তকে আল্লাহ #অতীব_পরিচ্ছন্ন_পবিত্র” রাখার দায়িত্ব নিজে নিয়েছেন বলে নিশ্চয়তা দিয়েছেন। যেখানে আল্লাহ নিজেই আহলে বায়তকে “সকল অপবিত্রতা থেকে অতীব পবিত্র ও পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্ব” নিজেই গ্রহণ করেছেন, সেখানে মাওলায়ে কায়েনাত এঁর দিকে এই অপবিত্র বস্তু মদকে স্পর্শ করানো তো শুধু মাওলায়ে কায়েনাত এঁর শানে বেয়াদবি নয়, বরং মহান আল্লাহর কুদরতের চাদর নিয়েই টানাটানির নামান্তর নয় কি?

পঞ্চমতঃ
সব সহীহ হাদীস কি গ্রহণীয়? সহজ সরল উত্তর হবেঃ- না। বর্ণনার ধারাবাহিকতার সঠিকতাই হাদীস সহীহ হওয়ার মূল ভিত্তি। কিন্তু গণহারে সব সহীহ হাদীস আমল ও আকিদার জন্য গ্রহণীয় নয়। যেমনঃ উম্মাহকুল আম্মাজান সাইয়িদা আয়িশা সিদ্দিকাহ রাদিআল্লাহু তায়ালা আনহার দৃষ্টিতে আঁকা হযরত সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া আলিহি ওয়াসাল্লামা মিরাজ শরীফে সশরীরে আল্লাহর দীদার লাভ করেননি, এটা স্বপ্নযোগে হয়েছে- যা প্রিয় রাসুল এঁর দুনিয়াবি জীবনে অসংখ্যবার হয়েছে। কিন্তু ওনার পরম সম্মানিত আব্বাজান হযরত সিদ্দিক আকবার রাদিআল্লাহু আনহু সহ অন্যান্য অসংখ্য আসহাবের বিশ্বাস মিরাজ শরীফ সশরীরে হয়েছে। এটাই আহলে সুন্নাত এর আকিদা। তাই তিরমিযী শরীফের মদপান সম্পর্কিত হাদীসটি আমলযোগ্য নয়, আলোচনাযোগ্য নয়, আকিদায় লালন করার তো প্রশ্নই আসে না।

আমি দ্বীনী জ্ঞানে অজ্ঞ হিসেবে আমার সহজ সরল উপলব্ধি তুলে ধরলাম। আলিমরা ভালো ব্যাখ্যা করতে পারবেন, আল্লাহ ও তাঁর হাবীব সবচেয়ে ভালো জানেন।

#সাল্লাল্লাহু_আলাইহি_ওয়া_আলিহি_ওয়াসাল্লামা
_______________________
মুহাম্মদ শাহীদ রিজভী,
আইনজীবী ও সমাজকর্মী,
৩০ মে, ২০২০। শনিবার।

Poster_Courtesy: @Mohammad Hossain.

ট্যাগ:

শীর্ষ সংবাদ:
মতলব উত্তরে চার প্রতিষ্ঠানকে ৩১ হাজার টাকা জরিমানা আওয়ামীলীগ রাজপথে ছিল, আছে এবং থাকবে: মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া চাঁদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী দুইজন গোপন ভিডিও ভাইরাল করার হুমকি: ফেনীর জাহেদ আটক গোপন ভিডিও ভাইরাল করার হুমকি: ফেনীর জাহেদ আটক মেঘনায় বজ্রপাতে জেলে নিখোঁজ, আহত এক কচুয়ায় পুলিশের অভিযানে মাদকদ্রব্যসহ আটক ১ চাঁদপুরে আওয়ামীলীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা রফিকউল্লাহ কোম্পানি ছুরিকাঘাতে খুন হাজীগঞ্জের বলাখালে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণ হাজীগঞ্জে গ্রাম ডাক্তার কল্যাণ সোসাইটির সম্মেলন অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ১৫ জন জাতীয় নারী দলের ফুটবলারের পদত্যাগ বেসরকারি হাসপাতালে উপেক্ষিত নির্দেশনা হাজীগঞ্জে আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরণ করেন এমপি গন্ধর্ব্যপুর উ: ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি মহিন সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ওড়পুর হযরত কাজী করমুল্লাহ (রহ.) মাদ্রাসা ও এতিমখানার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন সেলিম খানের স্থাবর অস্থাবর সম্পদ জব্দের নির্দেশ ভুয়া স্কুল-কলেজের প্রশংসাপত্র তৈরী চক্রের মূল হোতা সাইফুল গ্রেফতার করোনা শনাক্তের হার ১৫.৩৮ শতাংশ ছাড়াল কুমিল্লায় ২০ কেজি গাঁজা ও আট বোতল বিদেশী মদসহ গ্রেফতার দুই নয় হাজার চার’শ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার দুই: মোটরসাইকেল জব্দ