লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশী নিহত

পপুলার বিডিনিউজ রিপোর্ট
আপডেটঃ মে ২৯, ২০২০ | ২:০০
পপুলার বিডিনিউজ রিপোর্ট
আপডেটঃ মে ২৯, ২০২০ | ২:০০
Link Copied!

লিবিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর মিজদাহতে ২৬ বাংলাদেশিসহ ৩০ অভিবাসীকে গুলি করে হত্যা করেছে হয়েছে লিবিয়ান মিলিশিয়া বাহিনী।

বৃহস্পতিবার (২৮ মে) লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপলি থেকে ১৮০ কি.মি. দক্ষিণে মিজদাহ শহরে ওই অভিবাসীকে নির্বিচারে গুলি করে হত্যা করা হয়।

লিবিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাস জানিয়েছে, লিবিয়ার মিলিশিয়া বাহিনীর এলোপাতাড়ি গুলিতে ২৬ বাংলাদেশিসহ ৩০ অভিবাসী নিহত হন। এ ঘটনায় প্রাণে বেঁচে যাওয়া এক বাংলাদেশির সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ হয়েছে দূতাবাসের।

বিজ্ঞাপন

কোনোভাবে প্রাণে বেঁচে বর্তমানে একজন লিবিয়ানের আশ্রয়ে আত্মগোপন করে আছেন ওই বাংলাদেশি। সেখান থেকে তিনি দূতাবাসকে জানান, ১৫ দিন আগে বেনগাজী থেকে মরুভূমি পারি দিয়ে কাজের সন্ধানে মানব পাচারকারীরা তাদের লিবিয়ার ত্রিপলি শহরে নিয়ে আসার পথে তিনিসহ মোট ৩৮ বাংলাদেশি মিজদাহ শহরে দুষ্কৃতিকারীদের হাতে জিম্মি হন।

জিম্মি অবস্থায় তাদের অত্যাচার, নির্যাতন করার একপর্যায়ে অপহৃত ব্যক্তিরা মূল অপহরণকারী লিবিয়ান ব্যক্তিকে হত্যা করেন এবং এর জের হিসেবে অন্যান্য দুষ্কৃতিকারীরা আকস্মিকভাবে তাদের ওপর এলোপাতাড়ি গুলি করে। এতে ২৬ বাংলাদেশি নিহত হয়, যাদের মরদেহ মিজদাহ হাসপাতালে রাখা হয়েছে। আহত অন্যান্য বাংলাদেশিরা হাতে-পায়ে, বুকে-পিঠে গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় আহত ১১ বাংলাদেশিকে জিনতান হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ত্রিপলি মেডিকেল সেন্টারে (টিএমসি) পাঠানোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

লিবিয়ার আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংক্রান্ত মুখপাত্র সাফা মেশেলি বলেন, আমরা সদ্যই খবরটি জেনেছি এবং আরও বিশদ জানতে চেষ্টা করছি। বর্তমানে আমরা বেঁচে যাওয়া লোকদের সহায়তা করছি।

এ ব্যাপারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন জানিয়েছেন, বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষ থেকে এক কর্মকর্তাকে হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

ট্যাগ: