মতামত: বিআরটিসি গাড়ী বন্ধের ষড়যন্ত্র চলছে !

মাহমুদ ফারুক
আপডেটঃ সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১ | ২:৫৩
মাহমুদ ফারুক
আপডেটঃ সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১ | ২:৫৩
Link Copied!

লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ-হাজীগঞ্জ ও গৌরিপুর সড়কে বিআরটিসি গাড়ী বন্ধের ষড়যন্ত্র চলছে! বিআরটিসি পরিবহন। প্রায় বছর দুয়েক আগে ঢাকা-গৌরিপুর-হাজীগঞ্জ-রামগঞ্জ ও লক্ষ্মীপুর সড়কে বেশ কিছু যাত্রী পরিবহন (বিআরটিসি এয়ারকন্ডিশন্ড গাড়ী) দেয়া হয়।

শুরুতে বিআরটিসি পরিবহন কর্তৃপক্ষ হাজীগঞ্জ ২৫০, রামগঞ্জ ৩০০ ও লক্ষ্মীপুর ৩৫০ টাকা ভাড়া নির্ধারণ করলে রামগঞ্জ- সোনাইমুড়ি-লাকসাম হয়ে ঢাকা এবং রামগঞ্জ-হাজীগঞ্জ হয়ে ঢাকায় আসা যাওয়া অন্য পরিবহনগুলো ভাড়া কমাতে বাধ্য হয়। হু হু করে বাড়তে থাকে বিআরটিসি (এসি) পরিবহনের যাত্রী।
এ সড়কে চলাচলরত রক্তচোষা পরিবহনগুলোর সেবার মানও উন্নীত হয় বহুগুন। এদিকে রীতিমতো ভীড় লেগে থাকে বিআরটিসি পরিবহন কাউন্টারগুলোতে।
লকডাউনের কারনে কিছুটা গতি রোধ হয় অন্য সব যাত্রী পরিবহনের সাথে বিআরটিসি পরিবহনের।
সবশেষে সরকারী কঠোর নিষেধাজ্ঞায় সারাদেশে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবারও সারাদেশে গণপরিহনগুলো চলাচল শুরু করে।
কিন্তু এবারের বিআরটিসি কর্তৃপক্ষের আচরন ভীন্নতর হয়ে যায়। যাত্রী ও টিকিট প্রতি ভাড়া বেড়েছে ৫০ টাকা। সেবার মানও যাচ্ছেতাই। চালক-হেলপার এবং সুপারভাইজার যাত্রীদের সাথে খারাপ আচরন শুরু করে। নির্ধারিত নিয়ম ও সময় না মেনে গাড়ী ছাড়ার ব্যপারে বিস্তর অভিযোগ পাওয়া গেছে গত বেশ কিছুদিন থেকে। যত্রতত্রে পার্কিংও নিত্তনৈমিত্তিক ঘটনা।
অপরদিকে কাউন্টারে বসে থাকা একদল দালাল ঢাকার এয়ারপোর্ট বা অন্য কোথাও থেকে আসা প্রাইভেট-মাইক্রো গাড়ী চালকদের সাথে যোগাযোগ করে বিআরটিসির যাত্রী একই খরছে লক্ষ্মীপুর থেকে হাজীগঞ্জ পর্যন্ত কাউন্টার বা তার আশেপাশে অপেক্ষায় থাকা প্রাইভেট ও মাইক্রোতে বিআরটিসির যাত্রী তুলে দেয়া হয়। এতে করে যাত্রী সঙ্কট দেখা দেয় বিআরটিসি পরিবহনে।
যাই হোক মূল কথায় আসি, চলতি মাসের ২২ সেপ্টেম্বর বিশেষ কাজে আমার ঢাকায় যেতে হয়। কাজ সেরে ঐদিন রাতেই কমলাপুর মূল ষ্টেশনে এসে রাত ৮টার বিআরটিসি গাড়ীতে চড়ে বসি। টিকিটের গায়ে তারিখ লেখা থাকলেও রামগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা নির্ধারিত ছকে লেখা রয়েছে নৈশ।
নৈশ লেখাটা যে উদ্দেশ্য প্রনোদিত তা হাঁড়ে হাঁড়ে টের পাই, যখন রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ফ্লাইওভারটি পার হতে পারেনি ইচ্ছাকৃতভাবে। দেড় ঘন্টার অপেক্ষায় অন্তত ৩০টি যায়গায় বাসটি থেমে থেমে যাত্রীদের উঠানো হয়।
এসময় যাত্রীদের চিৎকার চেচামেচি আর গাড়ী ছাড়ার তাগাদা দেয়া হলেও ২০ থেকে ২২ বছর বয়সী চালক সেদিকে কোন কর্ণপাতই করেননি। উপরুন্ত ফ্লাইওভারের আগে গাড়ীতে উঠে বসা একজন কাউন্টারম্যান সামনের সারিতে বসা এক যাত্রীর সাথে তর্কে লিপ্ত হয়ে যাত্রীকে প্রশ্ন করেন আপনার বাড়ী কই?
যাত্রীর উত্তর হাজীগঞ্জ। কাউন্টারম্যান কড়া গলায় জানালো এটা ঢাকা। আপনার মাস্তানি হাজীগঞ্জ, ঢাকায় মাস্তানি চলবে না। কিছুটা হট্টগোল হলেও কিছুক্ষণ পর কাউন্টারম্যান নেমে যাওয়ায় বিষয়টি আর বাড়েনি।
শনি আখড়ায় আসার পর একটি লোকাল বাসকে ওভারটেক করতে গিয়ে আরেক জামেলা। লোকাল বাসটির চালক নেমে এসে বিআরটিসির চালককে জিজ্ঞাসা করে আপনি এভাবে গাড়ীটি ওভারটেক করায় অল্পের জন্য দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায় তার গাড়ী। কেন তিনি (বিআরটিসির চালক) এভাবে গাড়ীটি চালাচ্ছেন।
শুরু হয় দুই চালকের অশ্লীল আর অশ্রাব্য ভাষায় তর্কযুদ্ধ। এক পর্যায়ে বিআরটিসি চালক হুমকি দেয়, মারবি? আয় কাছে আয় মাদা–দ। মারবি? মেরে দেখ। সরকারী গাড়ীর চালক আমি। বাড়ী পর্যন্ত যেতে পারবি না- বাই—-ত। এত জগণ্য ভাষায় চলে গালাগাল। বাধ্য হয়ে এবার যাত্রীরাই বিআরটিসি চালককে গাড়ী চালাতে বললে এ যাত্রায় ও রক্ষা।
রাত ১১টায় গাড়ীটি আসে দাউদকান্দি, চালকের মনে হলো পিঁছনের চাকায় হাওয়া নেই। এমন এক যায়গায় গাড়ীটি দাঁড় করানো হলো যেখানে যাত্রীদের প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেয়ার কোন সুযোগই নেই। ১৫মিনিট পরে আবার শুরু হয় রামগঞ্জের উদ্দেশ্যে যাত্রা। গৌরিপুর হয়ে হাজীগঞ্জ সড়কে ঢুকার পর পুরো গাড়ী ও যাত্রীদের নিয়ে শুরু হয় চরম খেলা। আকাঁবাঁকা সড়কে দূর্বার গতিতে চলছে গাড়ী। মোড়, খানাখন্দ কোন দিকে নজর নেই চালকের। ধুফধাফ আর ঝাঁকুনি, সেদিকে নজর নেই গাড়ী চালকের। মনে হলো একটু দেরি হলেই চালকের ফ্লাইট মিস হয়ে যাবে। যাত্রীদের পুরো শরীরে তীব্র ব্যাথা।
জায়গায় জায়গায় যাত্রী নামানো হচ্ছে, অথছ সামনে বসে সুপারভাইজার হাঁকডাক দিচ্ছে, এ–ই সাচার, এ–ই কচুয়া, হাজীগঞ্জ। এদিকে যাত্রাপথে হাজীগঞ্জের এক যাত্রী ঘুমিয়ে পড়েন, উনি যাবে শাহরাস্তির রাঘৈ গ্রামে। কিন্তু তিনি সুপারভাইজারের ডাকে সাড়া দিতে না পারায় চলে আসেন রামগঞ্জের কাছাকাছি। হটাৎ করেই ঘুম থেকে উঠে তিনি চিৎকার দেন, আমাকে হাজীগঞ্জ নামিয়ে দিয়েন। কিন্তু পিঁছনে যাওয়ার আর কোন সুযোগ তো নাই এতরাতে। আবার এত রাতে তিনি পথিমধ্যে নেমে কোথায় যাবেন?
বাধ্য যাত্রী রামগঞ্জের সোনাপুর চৌরাস্তায় নেমে পড়েন। সেখান থেকে পানিয়ালা হয়ে রাঘৈ যেতে ৩০০টাকা দিয়ে একটি সিএনজি অটোরিক্সা রিজার্ভ করেন যাত্রী।
রাত পৌনে ১টায় রামগঞ্জ পুলিশ সংলগ্ন বিআরটিসি কাউন্টারের সামনে এসে দাঁড়ায় গাড়ীটি।
উক্ত সড়কে বিআরটিসি গাড়ীতে চলাচলরত যাত্রীরা প্রতিনিয়ত এমন ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। অনেকে মনে করছেন, লক্ষ্মীপুর, রামগঞ্জ বা হাজীগঞ্জ এলাকা থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে চলাচলরত অন্য গণপরিবহন মালিকদের সাথে আঁতাত করেই এ ধরনের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন একটি মহল। যাতে করে এ সড়কগুলো দিয়ে বিআরটিসির গণপরিবহনগুলো বন্ধ হয়ে যায়। যেভাবে বন্ধ হয়েছে রামগঞ্জ-চাটখিল-সোনাইমুড়ি-বেগমগঞ্জ ও মাইজদিতে চলাচলরত বিআরটিসির অন্য পরিবহনগুলো।
দয়া করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট অনুরোধ বিআরটিসির এ ধরনের অবিচার থেকে কয়েকজেলার মানুষকে রক্ষা করুন। মানুষের গলাকাটা অন্য পরিবহনগুলোর মালিকদের ষড়যন্ত্র থেকে পরিত্রান চান এলাকাবাসী।

আরো পড়ুন:  ইঞ্জি. মমিন ও রহিম পাটোয়ারী ছাড়া সবার জামিন মঞ্জুর

লেখক:
মাহমুদ ফারুক
ভুক্তভোগী ও সংবাদকর্মী।

বিজ্ঞাপন

ট্যাগ:

শীর্ষ সংবাদ:
বিএনপির নৈরাজ্যের প্রতিবাদে চাঁদপুরে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল চাঁদপুর শহরে ওকে মমতা প্যালেস -এর নির্মাণ কাজ উদ্বোধন বাবাকে হাসপাতালে নেয়ার কথা বলে জামাতা ও ছোট ছেলে লিখে নিলো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ফরিদগঞ্জে বেগম রোকেয়া দিবস ও আর্ন্তজাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ পালিত কোরআনের হাফেজ হলেন ধেররার নাজমুল  কুমিল্লায় ২৯০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট’সহ পলাশ গ্রেফতার কচুয়ায় চার নারী পেলেন জয়িতা সম্মাননা চাঁদপুরে দুই দিনব্যাপী মোবাইল সাংবাদিকতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ হাজীগঞ্জে পাঁচ নারী পেলেন জয়িতা সম্মাননা আগামী কাল হাইমচর উপজেলা আ’লীগের সম্মেলন চাঁদপুরে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধা, টিয়ারসেল নিক্ষেপ শেখ হাসিনা সরকার পুলিশকে জনগণের প্রতিপক্ষ বানিয়ে দিয়েছে – অ্যাড. সলিম উল্লাহ সেলিম সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী অ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমানের পক্ষে মিছিল ফরিদগঞ্জ উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতির কৃষি ঋন বিতরণ বিএনপি আইন মেনে সভা-সমাবেশ করলে সরকারের বাধা নেই: স্বপন চাঁদপুরে নবান্ন উৎসব উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নয়াপল্টন ‘ক্রাইম জোন’, যেতে দেওয়া হচ্ছে না সাংবাদিকদেরও কুমিল্লায় বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ছত্রভঙ্গ, দুই নেতা আটক যে হাতে মারতে আসবে, সে হাত ভেঙে দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী দেশের প্রথম নারী শিক্ষামন্ত্রীর জন্মদিন আজ