সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তার যোগশাজসে প্রণোদনার তালিকা ( দ্বিতীয় পর্ব )

মনিরুজ্জামান বাবলু
আপডেটঃ জুলাই ১০, ২০২০ | ৬:৪৯
মনিরুজ্জামান বাবলু
আপডেটঃ জুলাই ১০, ২০২০ | ৬:৪৯
Link Copied!

হাজীগঞ্জ উপজেলার এক সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তার যোগশাজসে প্রণোদনার তালিকা হয়। তিনি হলেন উপজেলা সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাকির হোসেন। ২০১৬ সালে হাজীগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা শাখায় যোগদান করেন। করোনাকালে খুব সুক্ষভাবে তিনি নন এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নন এমপিও শিক্ষকদের মাঝে প্রণোদনা প্রদানের তালিকা তৈরি করেন।

বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কথা বলে জানা গেছে, তড়িগড়ি করে এই তালিকা করা হয়েছে। যাতে করে নির্দিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো প্রণোদনা পায়। শিক্ষকরা একভাবে কোন আবেদন করেননি। এটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে তালিকা করে দেয়া হয়েছিল।

হাজীগঞ্জ সরকারী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের প্রভাষক তাজুল ইসলাম ও আলমগীর হোসেন বলেন, আমরা ননএমপি শিক্ষক। আমরা প্রণোদনা পাইনি। এভাবে উপজেলায় আরো অনেক শিক্ষক আছে।

বিজ্ঞাপন

প্রথম পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন- পাঁচ হাজার টাকা করে সরকারী প্রণোদনা পেলেন কারা?

পাঁচ হাজার টাকা করে সরকারী প্রণোদনা পেলেন কারা? ( প্রথম পর্ব )

বিজ্ঞাপন

খবর নিয়ে জানা গেছে, শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাকির হোসেন সরকার বিরোধী একটি রাজনৈতিক দলের আদর্শ বাস্তবায়ন করছেন। তারই সূত্রে তিনি উপজেলা থেকে সরকারি সুবিধাগুলো পছন্দনীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেশি দিচ্ছেন। তারই প্রতিফলন করোনকালে সরকারের প্রণোদনা তালিকায় হাজীগঞ্জ আল-কাউছার স্কুলের ৩২ জন শিক্ষক ও অফিস সহায়ক, আল-বান্না হাইস্কুলে ১৩ জনসহ ৯১ জনের তালিকা করা হয়। তার মধ্যে অর্ধেকের বেশি শিক্ষক সরকার বিরোধী দলের আদর্শ বাস্তবায়নে কাজ করে।

এ বিষয়ে মুঠফোনে সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাকির হোসেন বলেন, ‘আমি এমপি স্যারের বাড়ীর লোক। তিনি জানেন আমি কোন আদর্শের। আমি তালিকা করতে কোন প্ররোচনা করিনি। সবই কিছুই অনলাইনে হয়েছে। বিস্তারিত শিক্ষা অফিসারের কাছ থেকে জেনে নিন।’

জানতে চাইলে মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান মুঠোফোনে বলেন, ‘নন এমপি শিক্ষকদের প্রণোদনার তালিকা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ দুইদিনের মধ্যে চেয়েছিল। আমি দায়িত্বটা মোহাম্মদ জাকির হোসেনকে দিয়েছিলাম।’

রোববার সন্ধ্যায় তৃতীয় পর্বে পড়ুন- ‘করোনাকালে অনলাইন শিক্ষার সাড়া মেলেনি’

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

ট্যাগ: