তলদেশে জমেছে পলিথিনের স্তর হুমকিতে কর্ণফুলী

নদীতে জমেছে পলিথিনের স্তর হুমকিতে কর্ণফুলী

পপুলার বিডিনিউজ ডেস্ক
আপডেটঃ জুলাই ৪, ২০২২ | ৩:১৩
পপুলার বিডিনিউজ ডেস্ক
আপডেটঃ জুলাই ৪, ২০২২ | ৩:১৩
Link Copied!

কর্ণফুলী নদীতে জমেছে পলিথিনের স্তর। এতে নাব্য হারাচ্ছে নদীটি। তলদেশে কয়েক মিটার পুরু পলিথিনের আস্তরণের কারণে কর্ণফুলীতে জাহাজ চলাচল এখন হুমকির মুখে। চট্টগ্রাম বন্দরের ভবিষ্যৎ নিয়েও দেখা দিয়েছে শঙ্কা। কেননা দেশের সবচেয়ে বড় সমুদ্রবন্দরের স্থাপনাগুলো নির্মিত হয়েছে কর্ণফুলী নদীকে কেন্দ্র করে।

বন্দরসংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, কর্ণফুলীর গভীরতা বাড়িয়ে বন্দরকে বাঁচাতে ক্যাপিটাল ড্রেজিং প্রকল্প হাতে নেওয়া হলেও শুরু থেকে প্রতিবন্ধক হয়ে দাঁড়ায় পলিথিন। ড্রেজার আটকে যায় পলিথিনের পুরু স্তরে। চীন থেকে আনা অত্যাধুনিক ড্রেজার মেশিনও ফেরত পাঠাতে হয়েছে। ফলে স্বাভাবিক গতিতে নদীটি খনন করা যাচ্ছে না। অন্তত ৩০টি খাল দিয়ে কর্ণফুলীতে পড়ছে পলিথিন। এভাবে নদীর তলদেশে ২-৭ মিটার পর্যন্ত পলিথিনের স্তর জমেছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পুরোদমে কাজ করতে পারলে এরই মধ্যে ক্যাপিটাল ড্রেজিং প্রকল্প শেষ হয়ে যেত। কিন্তু পলিথিনের কারণে স্বাভাবিক খননকাজ বাধার মুখে পড়ছে। এ কারণে কাজ করতে হচ্ছে ধীরগতিতে।

সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন বড় ধরনের ড্রেজিং না হওয়ায় এ নদীর তলদেশ পলি জমে নাব্য কমে গেছে। ফলে বড় জাহাজগুলো (মাদার ভেসেল) কর্ণফুলী নদীতে প্রবেশ করতে পারে না। বহির্নোঙরে নোঙর করা বড় জাহাজ থেকে লাইটার (অপেক্ষাকৃত ছোট আকারের) জাহাজের মাধ্যমে পণ্য খালাস করা হয়। অবশ্য কিছু জাহাজ বহির্নোঙরে পণ্য কমিয়ে হালকা করার পর কর্ণফুলী নদী হয়ে বন্দরের জেটিতে নিয়ে আসা হয়। বন্দরের কার্যক্রম সচল রাখতে দীর্ঘদিন ধরে কর্ণফুলীতে ক্যাপিটাল ড্রেজিংয়ের দাবি জানিয়ে আসছিলেন বন্দর ব্যবহারকারীরা।

বিজ্ঞাপন

বন্দর কর্তৃপক্ষ ‘কর্ণফুলী নদীর সদরঘাট থেকে বাকলিয়া চর পর্যন্ত ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে নাব্য বৃদ্ধি’ প্রকল্প হাতে নেয়। ২০১৯ সালে এর কাজ শুরু হয়। কিন্তু শেষ হয়নি এখনো।

বন্দরের তথ্যমতে, এ প্রকল্পের আওতায় খননকাজ শুরুর পরই দেখা যায় ড্রেজার মেশিন ঠিকভাবে কাজ করছে না। এর কারণ পলিথিন। বিভিন্ন খাল হয়ে পলিথিন ও অন্যান্য কঠিনবর্জ্য নদীর তলদেশে জমেছে। এখন দেশীয় পদ্ধতিতে ছোট আকারের ড্রেজিং মেশিন দিয়ে বালু তুলে তা আবার বার্জে করে নিয়ে নির্দিষ্ট স্থানে রাখা হচ্ছে। এভাবেই ধীরগতিতে চলছে খননকাজ। বারবারই পলিথিনে আটকে যাচ্ছিল ড্রেজার মেশিন। বিভিন্ন স্থানে ২-৭ মিটার পর্যন্ত পলিথিনের স্তর পাওয়া গেছে। এখন দেশীয় পদ্ধতিতে ছোট আকারের ড্রেজিং মেশিন দিয়ে বালু তুলে তা আবার বার্জে করে নিয়ে নির্দিষ্ট স্থানে রাখা।

আরো পড়ুন:  আল্লাহর রঙে নিজেকে রাঙাতে পেরেছি কি

সূত্র:যুগান্তর
N/N

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

শীর্ষ সংবাদ:
চাঁদপুরে ১০০ টাকায় পুলিশে চাকরী পাচ্ছে ৯৩ জন মেঘনায় জব্দ ২০ বেহুন্দী জাল আগুনে পুড়িয়ে বিনষ্ট মতলব ডক্টরস ফোরাম’ এর আহবায়ক কমিটি গঠন কচুয়ায় জমজমাট ভাসমান ধানের চারা বিক্রির হাট চাঁদপুরে যাত্রীবাহী ট্রেন থেকে ২৮মণ জাটকা জব্দ আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল ‘বিশিষ্ট সমাজকর্মী’ মনোনীত জাতীয় গ্রন্থাগার দিবসে চাঁদপুরে শব্দঘর পাঠাগারের র‍্যালী ও বই পড়া কর্মসূচী ফরিদগঞ্জে মাদক বিরোধে সোহেলকে হত্যা করে মাটিচাপা দেয় বন্ধুরা মার্চের প্রথম সপ্তাহে আসছে আদানির বিদ্যুৎ চাঁদপুরে মৎস্য বণিক সমবায় সমিতির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত ইসলামী যুব আন্দোলনের চাঁদপুর জেলা যুব সম্মেলন অনুষ্ঠিত ঢাকা মেডিকেলের ডায়ালাইসিস সেন্টারে আগুন শাহরাস্তিতে ডোবার পানিতে ডুবে ২৮ মাস বয়সি শিশুর মৃত্যু ঢাকা মেডিকেলের নতুন ভবনে এসি বিস্ফোরণ, আতঙ্কিত রোগীরা হার্ট অ্যাটাকের পূর্বের কিছু লক্ষণ হাইমচরে অনুমোদন ছাড়াই চলছে বিদ্যালয় বিপুল পরিমাণ চোরাচালান দ্রব্যসহ পাঁচ চোরাকারবারি গ্রেফতার চাঁদপুরে রসু খাঁর খোঁজে শিহাব শাহীন, প্রস্তুত হচ্ছেন নিশো চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০ জনের চাকরি নয় মাসে কোরআন হেফজ করলেন দুই শিক্ষার্থী