ফরিদগঞ্জে দুই কিশোরীর আত্মহননের চেষ্টা, শিশু পানিতে ডুবে মৃত্যু

আনিছুর রহমান সুজন
আপডেটঃ আগস্ট ১৯, ২০২০ | ৯:৩৬
আনিছুর রহমান সুজন
আপডেটঃ আগস্ট ১৯, ২০২০ | ৯:৩৬
Link Copied!

ফরিদগঞ্জে পরিবারের সাথে অভিমান করে দুই কিশোরী আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। তাদের চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে উভয়কে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়।

জানা যায়, ফরিদগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের হাঁসা গ্রামের মৃধা বড়ির মনির হোসেন মৃধার মেয়ে মিতু আক্তার (১৬) কে তার মা পড়ালেখার জন্য ডাক দেয়। এছাড়া মিতু নবম শ্রেণিতে পড়ালেখা করলেও প্রেমে জড়িয়ে পরে। সেজন্য তাকে তার মা বকা-ঝকা করে। পরিবারের সাথে অভিমান করে মিতু ধানের পোকা মারার ঔষধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়।পরে তাকে দ্রুত চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নেয়া হয়।

অপরদিকে একই উপজেলার গুপ্টি পুর্ব ইউনিয়নের শ্রীকালিয়া গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের মেয়ে তাহমিনা আক্তার (১৮) মায়ের সাথে অভিমান করে অতিরিক্ত মাত্রায় ঘুমের ঔষধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। তাকে তার মা ও আত্মীয়-স্বজন সন্ধ্যা ৭টায় চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে এনে ভর্তি করে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে ফরিদগঞ্জে পানিতে পড়ে সুমাইয়া নামে সাত বছর বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নের উপাদি গ্রামে ঘটনা ঘটে। শিশুটির ওই গ্রামের মোখলেছুর রহমানের মেয়ে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার শিশুটি বাড়ির উঠানে খেলার সময় বাড়ির পাশের পুকুরে পড়ে যায়। পরে তার পরিবারের লোকজন শিশুটিকে পানিতে ভাসতে দেখে উদ্ধার করে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

ট্যাগ: